কবিতার আলো

কবিতার আলো হলো বাংলা কবিতার এক অনলাইন সংগ্রহশালা । এখানে বিখ্যাত কবিদের কবিতা , ছোট গল্প , গান পাঠ করতে পারবেন । এখানে কবিতার আসরে কবিতা ও সাহিত্যের আসরে গল্প প্রকাশ করতে পারবেন | একবিংশ শতকের সকল উদীয়মান কবি ও সাহিত্যিকদের প্রতিভার প্রকাশের এক অন্যতম মাধ্যম | এই আসরে স্বেচ্ছায় অংশগ্রহণ পূর্বক কবিতা ও গল্প প্রকাশের মাধ্যমে আপন পরিচিতি , মনীষা ও ব্যাক্তিত্বের সর্বাঙ্গীন বিকাশ ঘটাতে সমর্থ হবেন | আবালবৃদ্ধবণিতার কাছে এই ওয়েবসাইট টি অধিক জনপ্রিয় ও সমাদৃত হয়েছে | এই ওয়েবসাইট টি নিয়মিত আরো সমৃদ্ধ হচ্ছে | আপনাদের সক্রিয় সহযোগিতা ও সুচিন্তিত অভিমত প্রকাশের প্রতি রইলো আমাদের আন্তরিক আমন্ত্রণ |



রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর , বিশ্বকবি ১৮৬১ সালের ৭ই মে কলকাতার এক ধনাঢ্য পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিঁনি ছিলেন অগ্রণী বাঙ্গালী কবি, ঔপন্যাসিক, সঙ্গীতস্রষ্টা, নাট্যকার, চিত্রকর, ছোটগল্পকার, প্রাবন্ধিক, কন্ঠশিল্পী ও দার্শনিক। তাঁকে বাংলা ভাষার সর্বশ্রেষ্ঠ্য সাহিত্যিক মনে করা হয়। ১৯১৩ সালে গীতাঞ্জলি কাব্যগ্রন্থের জন্য তাঁকে সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার প্রদান করা হয়। ইউরোপের বাহিরের প্রথম নোবেল পুরস্কার বিজয়ী হিসাবে তিনি বিশ্বে ব্যপক খ্যাতি লাভ করেন। দীর্ঘ রোগভোগের পর ১৯৪১ সালের ৭ই অগাস্ট জোড়াসাঁকোর বাসভবনে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। তবে মৃত্যুর সাত দিন আগে পর্যন্ত তিঁনি সৃষ্টিশীল ছিলেন। রবীন্দ্রনাথ তাঁর লেখনীতে বাঙালির জীবন যাপন, সংস্কৃতিকে যেমন তুলে ধরেছেন, তেমনি বাঙালির চিরদিনের হাসিকান্না, আনন্দ-বেদনারও রূপকার তিনি। জগতের সকল বিষয়কে তিনি তাঁর লেখায় ধারণ করেছেন। মানুষের এমন কোনো মানবিক অনুভূতি নেই যা রবীন্দ্রনাথের লেখায় পাওয়া যায় না। তাঁর সম্পর্কে কবি দীনেশ দাশ বলেছেন, ‘তোমার পায়ের পাতা সবখানে পাতা’। সভ্যতার সকল সংকটে রবীন্দ্রনাথ এক বিশাল সমাধান। অন্ধকারে এক বিরাট আলোর প্রদীপ। বাংলাভাষা ও সাহিত্যকে তিনি সারাজীবনের সাধনায় অসাধারণ রূপলাবণ্যমণ্ডিত করেছেন। অতুলনীয় ও সর্বতোমুখী প্রতিভা দিয়ে তিনি বাংলা সাহিত্যকে বিশ্ব মানে উন্নীত করে বাঙালিকে এক বিশাল মর্যাদার আসনে নিয়ে গেছেন।

সার্চ করুন বাঙালি কবিদের কবিতা

  
spacebar অথবা tab টিপুন বাংলায় রূপান্তর করতে

  

পোস্ট তারিখ